1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : গোলাম সরোয়ার মেহেদী : গোলাম সরোয়ার মেহেদী বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  4. [email protected] : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  6. [email protected] : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  7. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৫:২৬ অপরাহ্ন

লাল কাঁকড়া ও অতিথি পাখির দেশ

সুনান বিন মাহাবুব
  • আপডেট : রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৬ বার দেখা হয়েছে

লাল কাঁকড়ার দল বালুচরে দলবেঁধে লুকোচুরি খেলা, নানাজাতের পাখির কলকাকলি, খুব বিহানে (সকালে) সমুদ্রের বুক চিরে জেগে ওঠা লাল সূর্য্যটা, বেলাশেষে আবার পশ্চিমের নদীতে ডুবে যাওয়ার মত দৃশ্য, মাইলের পর মাইল চিকচিকে বালুর মাঝে পা ফেলানো আর হঠাৎ সমুদ্রের জলরাশি ঢেউ এসে ছুঁয়ে যাওয়ার অনুভূতি পাওয়া যাবে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের জাহাজমারা সমুদ্রসৈকতে। দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের কূলে সৃষ্ট এসকল অবয়ব দৃশ্য সকল সৌন্দর্য প্রেমিদের কাছে টানতে শুরু করেছে।

রাঙ্গাবালী উপজেলা সদর থেকে ১০ কিলোমিটার দুরে এবং কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকত থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমে ২০ কিলোমিটার দুরে জাহাজমারা সমুদ্রসৈকত এর অবস্থান। পর্যটন মৌসুমে ছোট থেকে বৃদ্ধ সকলে এক নজর জাহাজমারা সমুদ্রসৈকতের মনোরম দৃশ্য উপভোগের জন্য ঘুরতে আসে। তবে যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো না হওয়ায় পর্যটকরা আগ্রহ হারাচ্ছে প্রকৃতির এই অপরূপ সৌন্দর্যের প্রতি।

জাহাজমারা সমুদ্রসৈকত ঘুরে এবং স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা গেছে, প্রতিদিন শত শত দর্শনার্থীদের ভিড়ে জমে ওঠে সমুদ্রসৈকত বাজার। স্থানীয় এক ব্যবসায়ী বলেন, প্রায় প্রতি বছরই বৌদ্ধ পূর্ণিমায় হাজার হাজার লোকের আগমন ঘটে এখানে। নানা আয়োজনে পালিত হয় বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের সে বিশেষ দিন। এছাড়া ছুটির দিনে বিভিন্ন স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীদের এখানে ভ্রমন করতে দেখা যায়। লাল কাঁকরা সমুদ্রসৈকত জুড়ে যখন বিচরণ করে দূর থেকে দেখে মনে হয় ফুলের পাপড়ি দিয়ে সাজানো গোটা সমুদ্রসৈকত। এছাড়াও শীতের মৌসুমে অতিথি পাখির আগমন ঘটে প্রচুর। পাখির কিঁচিরমিঁচির শব্দ এবং নাম না জানা অসংখ্য অতিথি পাখি পর্যটকদের মুগ্ধ করে রাখে সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত।

লাল কাঁকরা ও অতিথি পাখি দেখতে হলে দেশের যে কোন স্থান থেকে প্রথমে জেলা সদর পটুয়াখালী আসতে হবে। পটুয়াখালী থেকে বাস যোগে গলাচিপার হরিদেবপুর। সেখান থেকে খেয়া পাড় হয়ে গলাচিপা। এরপর মোটর সাইকেল বা পিকআপ যোগে পানপট্টি লঞ্চঘাট। পানপট্টি থেকে লঞ্চ বা ট্রলারযোগে কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট নেমে মটর সাইকেল যোগে সরাসরি জাহাজমারা যাওয়া যাবে। তবে আবাসিক হোটেল এবং যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো না হওয়ায় সন্ধার পরে অবস্থান করা যায় না সমূদ্রসৈকতে।

রাঙ্গাবালী উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন, এই অঞ্চলকে নিয়ে পর্যটনের অনেক কিছু করার আছে। বিশেষ করে জাহাজমারা ও তুফানিয়া অপার সম্ভবনার জায়গা ।
#
সুনান বিন মাহাবুব
পটুয়াখালী।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক শিরোমনি