1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : গোলাম সরোয়ার মেহেদী : গোলাম সরোয়ার মেহেদী বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  4. [email protected] : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  6. [email protected] : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  7. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান
রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০৭:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ

বন্দরে ডিস ব্যবসা নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংষর্ঘের আশংকা, নেপথ্য দুলাল নাকি বিন্দু!!

রিপোর্টার
  • আপডেট : সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৪৭ বার দেখা হয়েছে

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ বন্দরে ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা জোরপূর্বক দখল নিতে অস্থিতিশীল করার নেপথ্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কপোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুউদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধান নাকি মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু? এই প্রশ্ন এখন পুরো বন্দর জুড়ে ঘুরপাক খাচ্ছে । তবে এ পরিস্থিতিতে বন্দরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে, যেকোন সময়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে বন্দরবাসী।

ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা দখলের জন্য মাদক সম্রাট কাউন্সিলর দুলাল ও ছাত্রলীগ নেতা বিন্দু একটি সিন্ডিকেট করে। আর সিন্ডিকেটের লোকজন দিয়ে বেশ কয়েকদিন যাবৎ এলাকায় গিয়ে গ্রাহকের সংযোগ কেটে দিচ্ছেন এবং নানা ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে বলে জানা গেছে।

পরে এমন ভীতিকর অবস্থায় ৬ সেপ্টেম্বর রাতে স্থানীয় ক্যাবল ব্যবসায়ী এস এম পারভেজ আলম বাদী হয়ে ছাত্রলীগ নেতা বিন্দু সহ ৫ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অপরদিকে, ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা দখল নিতে ৫ সেপ্টেম্বর রাতে কাউন্সিলর দুলাল ও হাসনাত রহমান বিন্দুর সহযোগীরা ডিস লাইনের তার কেটে ফেললে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। যার প্রেক্ষিতে গত ৬ সেপ্টেম্বর সাড়ে তিনটার দিকে অস্ত্রসস্ত্রসহ কাউন্সিলর দুলাল ও ছাত্রলীগ নেতা বিন্দুর নেতৃত্বে বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খান মাসুদের বাড়িতে হামলা চালায়। এতে গুরুত্বর আহত হয় ৩ জন।

অভিযোগ রয়েছে, বিভিন্ন এলাকায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ এ.কে.এম শামীম ওসমানের পুত্র অয়ন ওসমানের নাম ভাঙ্গিয়ে ক্যাবল ব্যবসায়ী শ্যামলের ডিসের সংযোগ কর্তন করে কাউন্সিলর আব্দুল করিম ওরফে ডিস বাবুর লাইন ঢোকাচ্ছেন। এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু। এছাড়াও মাদক সম্রাট কাউন্সিলর দুলাল প্রধান ও ছাত্রলীগে নেতা বিন্দুর বিরুদ্ধে রয়েছে অভিযোগের পাহাড়।

এর আগেও বন্দরে সোনাকান্দা হতে আলীনগর পর্যন্ত ডিস লাইন নিয়ন্ত্রন নিতে ক্যাবলসহ সরঞ্জামাদি কেটে নিয়ে গেছে ফরাজীকান্দা এলাকার নব্য সন্ত্রাসী সজিব গং। সেই সময়ে কাউন্সিলর আব্দুল করিম ওরফে ডিস বাবুর লাইন ঢুকানো নিয়ে বন্দরে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা দেখা দেয়। এ ঘটনায় তৎকালীন সময়ে হাসান বাদী হয়ে বন্দর থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেন।

এদিকে এ ঘটনার পরে বন্দরে আবারও ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা দখল নিতে ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুউদ্দিন আহমেদ দুলালের লোকজন নিয়ে সিন্ডিকেট করে মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু সক্রিয় হয়ে উঠে। পরে বিভিন্ন এলাকার রাতের আধারে ডিস লাইন কর্তন কাউন্সিলর আব্দুল করিম ওরফে ডিস বাবুর লাইন ঢুকানো নিয়েই উত্তেজনা দেখা।

এ বিষয় স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসায়ী এস এম পারভেজ এর সাথে মুঠোফোন যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমরা দীর্ঘ প্রায় ৩০ বছর যাবত ডিস ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে কাউন্সিলর দুলাল ও ছাত্রলীগ নেতা বিন্দু সিন্ডিকেট করে কাউন্সিলর ডিস বাবুর লাইন বন্দরে ঢোকানোর চেষ্ঠা করছে। এবং বিভিন্ন জায়গায় তাদের লোকজন ডিস লাইনের সংযোগ কেটে দিচ্ছে। এ নিয়ে বন্দর থানায় দুইটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছি।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক শিরোমনি